বর্ণবৈষম্য গ্রহণযোগ্য নয়

আপনি যদি জাতিগত বৈষম্য, হয়রানি বা ঘৃণার সম্মুখীন হন বা অভিজ্ঞতা পেয়ে থাকেন, তবে তা সহ্য করবেন না; কথা বলুন।

আপনি যদি বর্ণবৈষম্যপূর্ণ আচরণের শিকার হন

  • আপনি যদি সহিংসতার সাথে লাঞ্ছিত বা হুমকির সম্মুখীন হন, তবে পুলিশের সাথে যোগাযোগ করুন।
    • জরুরী অবস্থায় বা জীবনের আশংকাজনক পরিস্থিতিতে, ট্রিপল জিরো (000)-তে কল করুন এবং পুলিশের উল্লেখ করুন।
    • আপনার যদি পুলিশের সাহায্য প্রয়োজন হয়, কিন্তু অবিলম্বে বিপদ না থাকে, তবে পুলিশ অ্যাসিসস্টেন্স লাইন (Police Assistance Line)-এ (131 444) নম্বরে ফোন করুন।
  • যদি কোন সহিংসতা না থাকে, এবং নিরাপদ হলে, সরাসরি জড়িত ব্যক্তি বা ব্যক্তিবর্গের সাথে এই প্রসঙ্গ উঠিয়ে আপনি নিজেই পরিস্থিতির মোকাবেলা করতে চাইতে পারেন।
  • যদি সরাসরি যোগাযোগে পরিস্থিতির সমাধান না হয়, বা আপনি যদি তা করতে স্বস্তি বোধ না করেন, তবে আপনি অস্ট্রেলিয়ান হিউমেন রাইটস কমিশন (Australian Human Rights Commission- AHRC)-এর কাছে অভিযোগ জানাতে পারেন।
    • অস্ট্রেলিয়ান হিউমেন রাইটস কমিশন-এ অভিযোগ পেশ করতে www.humanrights.gov.au/complaints ওয়েবসাইটটিতে যান বা AHRC-এর ন্যাশনাল ইনফরমেশন সার্ভিস (National Information Service)-এ 1300 656 419 বা 02 9284 9888 নম্বরে কল করুন।

দর্শক বা পাশে দাঁড়ানো ব্যক্তিদের শক্তি

বর্ণবৈষম্যের প্রত্যক্ষদর্শী ব্যক্তিরা যখন এর বিরুদ্ধে কথা বলে ওঠেন, তবে তা যে ব্যক্তিকে লক্ষ্য করে করা হয়েছে তাকে সমর্থনের বোধ দিতে পারে, এবং যে ব্যক্তি বৈষম্য করছেন তাকে তার আচরণের পুনঃবিবেচনা করার পরিবেশ তৈরি করতে পারে। আপনার নিজেকে হুমকির মুখে ফেলবেন না। কিন্তু যদি নিরাপদ হয়, তাহলে কথা বলে উঠুন এবং বৈষম্যের শিকার ব্যক্তির সাথে থাকুন। এমনকি একটি সাধারণ ইঙ্গিতই শক্তিশালী হতে পারে।

আপনি যদি বর্ণবৈষম্যমূলক আচরণ প্রত্যক্ষ করেন:

  • কথা বলে উঠুন — বর্ণবৈষম্য বলে চেঁচিয়ে উঠুন, অপরাধী বা সংঘটনকারীকে বুঝিয়ে দিন যে এটি গ্রহণযোগ্য নয়
  • বৈষম্যের শিকার ব্যক্তিকে সমর্থন করুন- যে ব্যক্তিকে লক্ষ্য করে করা হয়েছে তাঁর পাশে দাড়ান এবং তাঁকে জিজ্ঞেস করুন তিনি ঠিক আছেন কিনা 
  • প্রমান সংগ্রহ করুন- আপনার ফোনে ঘটনাটি রেকর্ড করুন, অপরাধী বা সংঘটনকারীর ছবি তুলুন এবং কর্তৃপক্ষের কাছে রিপোর্ট করুন

দ্য অস্ট্রেলিয়ান হিউমেন রাইটস কমিশন (The Australian Human Rights Commission)-এর কাছে দর্শক বা পাশে দাঁড়ানো ব্যক্তিদের জন্য পরামর্শ আছে, https://itstopswithme.humanrights.gov.au/respond-racism ওয়েবসাইটটিতে যান।

জাতিগত বা বর্ণ বৈষম্য ও আপনার অধিকার

অস্ট্রেলিয়াতে জনসমক্ষে কোন ব্যক্তিকে বা গোষ্ঠিবদ্ধ মানুষদেরকে সম্প্রদায়, বর্ণ, জাতিগত বা গোত্রীয় উৎসের উপর ভিত্তিতে কোন কিছু করা যা তাঁদেরকে ক্ষুব্ধ, অপমানিত, অবমানিত বা আতঙ্কিত করতে পারে, সেসব আইনবিরুদ্ধ। এই ধরণের আচরণকে জাতিগত বা বর্ণবৈষম্যগত ঘৃণা হিসেবে শ্রেণীবদ্ধ করা হয়েছে।

জাতিগত ঘৃণার উদাহরণের অন্তর্ভুক্ত হলোঃ

  • ইন্টারনেটে জাতিগতভাবে আক্রমণাত্মক হওয়া, ই-ফোরাম, ব্লগ, সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট এবং ভিডিও শেয়ারিং এর অন্তর্ভুক্ত।
  • খবরের কাগজে, ম্যাগাজিনে বা অন্যান্য যেকোন প্রকাশনা যেমন লিফলেট বা ফ্লায়ারে জাতিগতভাবে আক্রমণাত্মক মন্তব্য বা ছবি
  • প্রকাশ্য সমাবেশে জাতিগতভাবে আক্রমণাত্মক বক্তব্য
  • প্রকাশ্য জায়গায় জাতিগতভাবে গালিগাজপূর্ণ মন্তব্য, যেমন দোকান, কর্মক্ষেত্র, পার্ক, গণ যানবাহন বা স্কুলে
  • কোন খেলার ইভেন্টে জাতিগতভাবে খেলোয়াড়, দর্শক, প্রশিক্ষক বা কর্মকর্তাদের দ্বারা গালিগাজপূর্ণ মন্তব্য

এই আইনটির উদ্দেশ্য হচ্ছে মুক্তভাবে মতামত প্রকাশের বা যোগাযোগ করার (কথা বলার স্বাধীনতার) অধিকার এবং জাতিগত ঘৃণার থেকে মুক্ত থেকে জীবনযাপনের অধিকারের মধ্যে ভারসাম্য রক্ষা করা। কিছু পরিস্থিতে কার্যকলাপগুলো আইনবিরুদ্ধ নাও হতে পারে যদি সেগুলো “ কারণপূর্ণভাবে এবং ভাল বিশ্বাসের সাথে করা হয়”।

বর্ণ বৈষম্য হয় যখন একই পরিস্থিতিতে কোন ব্যক্তির সাথে অন্য আরেকজন ব্যক্তির তুলনায় কম ভালোভাবে আচরণ করা হয় তাঁদের গোষ্ঠি, বর্ণ, গোত্র, জাতি বা জাতিগত গোষ্ঠির বা অভিবাসীদের মর্যাদার কারণে, যেমন কেউ কোন নির্দিষ্ট জাতিগত পটভূমির বা গায়ের রঙের হলে তাঁদেরকে বাড়ী ভাড়া না দেয়া।

যদি কোন নিয়ম বা পলিসি থাকে যা সবার জন্য প্রজোয্য কিন্তু কিছু নির্দিষ্ট গোষ্ঠি, বর্ণ, গোত্র, জাতি বা জাতিগত গোষ্ঠির বা অভিবাসীদের মর্যাদার জন্য অন্যায্য প্রভাব সৃষ্টি করে, যেমন কোন কোম্পানী যদি বলে যে কাজের জায়গায় কোনরকম টুপি বা মাথার আবরণ অবশ্যই পরা যাবে না, যা কিছু গোত্র / জাতিগত গোষ্ঠির পটভূমির মানুষের জন্য অন্যায্য প্রভাব ফেলে থাকে, তাহলেও তাতে বর্ণবৈষম্য হতে পারে।

আপনি যদি জাতিগত ঘৃণার অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হন তাহলে আপনি অস্ট্রেলিয়ান হিউমেন রাইটস কমিশন (Australian Human Rights Commission’s) -এর কাছে অভিযোগ জানাতে পারেন। অভিযোগের প্রক্রিয়াটি সহজ, বিনামূল্যের এবং নমনীয়।

অস্ট্রেলিয়ান হিউমেন রাইটস কমিশন-এ অভিযোগ পেশ করতে www.humanrights.gov.au/complaints ওয়েবসাইটটিতে যান।

জাতীয় তথ্য সেবা (ন্যাশনাল ইনফরমেশন সার্ভিস)

অস্ট্রেলিয়ান হিউমেন রাইটস কমিশন-এর ন্যাশনাল ইনফরমেশন সার্ভিস (NIS) স্বতন্ত্র ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান এবং নিয়োগকারীদেরকে বিভিন্ন ধরনের মানবিক অধিকার ও বৈষম্য বিষয়ক তথ্য ও রেফারেল প্রদান করে থাকে। এই সেবাটি বিনামূল্যের এবং গোপনীয়।

NIS যা করতে পারেঃ

  • ফেডারেল মানবিক অধিকার ও বৈষম্য-বিরুদ্ধ আইনের অধীনে আপনার অধিকার ও দায়িত্বের ব্যাপারে আপনাকে তথ্য দিতে পারে
  • কমিশনের কাছে আপনি অভিযোগ উত্থাপন করতে পারবেন কিনা বা আপনার পরিস্থিতিতে আইন কীভাবে প্রযোজ্য তা আপনার সাথে আলোচনা করতে পারে
  • কীভাবে অভিযোগ করবেন, অভিযোগে সাড়া দেবেন বা বিশেষভাবে নির্দিষ্ট কোন বৈষম্যের ব্যাপারে আপনাকে তথ্য দেবে।
  • অন্য কোন প্রতিষ্ঠানে আপনাকে রেফার করতে পারে যাঁরা হয়তো আপনাকে সাহায্য করতে সক্ষম হতে পারে

অনুগ্রহ করে লক্ষ্য করুন NIS আইনগত উপদেশ দিতে অক্ষম।

আপনি NIS -এর সাথে যগাযোগ করতে পারেনঃ

ট্রান্সলেটিং অ্যান্ড ইন্টারপ্রেটিং সার্ভিস (Translating and Interpreting Service)

ট্রান্সলেটিং অ্যান্ড ইন্টারপ্রেটিং সার্ভিস (TIS National) একটি অনুবাদ সেবা যেটি যাঁরা ইংরেজি ভাষা বলেন না তাঁদের জন্য। TIS National-এর সেবাগুলো ইংরেজি ভাষা যাঁরা বলেন না তাঁদের জন্য বিনামূল্যের।

কাইন্সেলিং ও মানসিক স্বাস্থ্য কল্যাণ

বিশেষভাবে বিশ্বব্যাপী COVID-19 মহামারীরতে মানুষদের সাহায্য করার জন্য একটি ২৪/৭ সহায়তা সেবার ব্যবস্থা করা হয়েছে যা সকল অস্ট্রেলিয়ানদের জন্য বিনামূল্যে পাওয়া যাবে।

এই সহায়তা সেবাটি নীচের ওয়েবসাইটে গেলে পাওয়া যাবে https://coronavirus.beyondblue.org.au/

ব্যক্তিগত শঙ্কাজনক পরিস্থিতি বা মানসিক স্বাস্থ্য সহায়তা সেবা পেতে আপনি Beyond Blue -এর সাথে 1800 512 348 নম্বরে বা Lifeline -এ 13 11 14 নম্বরে যেকোন সময়ে যোগাযোগ করতে পারেন। 

কিডস হেল্পলাইন (Kids Helpline) ৫ থে ২৫ বছর বয়সী অল্পবয়স্ক মানুষদের জন্য একটি বিনামূল্যের সেবা। ছোট বাচ্চা, কিশোর এবং তরুণরা যেকোন সময়ে 1800 551 800 নম্বরে কল করতে পারেন।